What is E-Visa?


what is E-Visa?

প্রতিটি দেশেই  ভিসা প্রসেসিং এর নির্দিষ্ট পদ্ধতি রয়েছে।কিন্তু ,ভিসা সন্ধানকারীরা প্রায়শই নানাভাবে  বিভ্রান্ত হন বা অনলাইনে ই-ভিসা করার ক্ষেত্রে অসুবিধার মধ্যে পড়েন।কিন্তু, খুবই কম সময়ে কোনো ঝামেলা ছাড়াই যাতে  international travelers রা অনলাইনে ভিসা পেতে পারে সে লক্ষেই বিভিন্ন দেশে ই-ভিসার প্রচলণ করা হয়েছে।

১) ই-ভিসা হলো ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট কতৃক ইস্যুকৃত এপ্রুভাল।
২) আপনি যে দেশে যাবেন সে দেশে ই-ভিসার জন্য নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে আপনাকে আপনার প্রয়োজনীয় কাগজপত্রগুলো আপলোড করতে হবে।
৩) ই-ভিসাতে আবেদন করার পর সেখানে তাদেরকে একটা নির্দিষ্ট এমাউন্ট অনলাইন এর মাধ্যমে পে করতে হয়।
৪) ভিসা হবার পর সেই দেশের ইম্মিগ্র্যাশন ডিপার্টমেন্ট থেকে ইমেইলে নোটিফিকেশন দেওয়া হয়ে থাকে।
৫) ই-ভিসার সম্পূর্ণ প্রসেস অনলাইনে সম্পন্ন হয় এবং PDF document হিসেবে ভিসা এপ্রুভাল দেওয়া হয়।
৬) ই-ভিসার ক্ষেত্রে আপনি টুরিস্ট এবং ভিসিট দুটোর জন্যই এপলাই করতে পারবেন।
৭) বাংলাদেশ থেকে অনেকগুলো দেশে ই-ভিসার জন্য এপলাই করা যায় তার মধ্যে কিছু সংখ্যক দেশ হলো:
উগান্ড,উজবেকিস্তান,কেনিয়া,সুরিনেম,তানজানিয়া,জর্ডান, জিম্বাবুয়ে, জাম্বিয়া,ইথিওপিয়া,মালাউই,সাও তোমে এন্ড প্রিন্সিপাল।

error: Content is protected !!